সোমবার, ১০ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৪:২৯

শিরোনাম :
বরিশালে ছাত্রলীগ নেতা নিক্সন সজিবের উদ্যোগে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ বরিশালে দেড় হাজার কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ ফের স্বরূপেই বরিশাল নগরী! করোনায় জীবন-জীবিকা এখন মুখোমুখি নগরীতে ছাত্রলীগ নেতাকে কোপালো অপর এক ছাত্রলীগ নেতা! প্রধানমন্ত্রীর কাছে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র থেকে মুক্তির আবেদন করেও শেষ রক্ষা হলো না ছাত্রলীগ সভাপতির!  বরিশালে কঠোর লকডাউনে শহরে সুনসান,অলিগলিতে ভিড়-আড্ডাবাজি! বরিশাল অনলাইন প্রেসক্লাবের আত্মপ্রকাশ বরিশালে মানসিক প্রতিবন্ধী মারুফের সন্ধান চায় পরিবার মামুনুল ও হেফাজত ইস্যুতে মন্তব্য করায় আরিফিন মোল্লাকে প্রাণনাশের হুমকি!

রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন

dynamic-sidebar

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশের রাজনীতিতে প্রতিহিংসা একটি সাধারণ বিষয়৷ ক্ষমতাসীন আর ক্ষমতা হারানো এবং ক্ষমতাসীন দলের মধ্যে গ্রুপিং এর কারণে প্রতিহিংসার রাজনীতি চলছে বছরের পর বছর৷ এই রাজনীতির শিকার হন শীর্ষ নেতা থেকে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা৷ তারই প্রেক্ষাপটে ক্রমে ক্রমে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হচ্ছেন বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন।দল ক্ষমতায় থাকা সত্যেও রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জেরে দীর্ঘদিন যাবত হামলা,মামলা এবং বিভিন্ন ভাবে হয়রানীর শিকার হতে হচ্ছে এই সভাপতিকে।

 

 

সোমবার (১১জানুয়ারী ) বিকেল ৩টার দিকে নগরীর ১৩ নং ওয়ার্ডের রুপাতলী সাগরদী ব্রিজ এলাকায় অনুমোদন ছাড়া ভবন নির্মাণের কাজ অব্যাহত রাখার অভিযোগে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিনের ৬ বিশিষ্ট বাণিজ্যিক ভবন ভেঙ্গে দিয়েছে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন।।এসময় বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা, স্থানীয় কাউন্সিলরসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলো। ভবন ভাঙচুর করার কোন নোটিস সিটি কর্পোরেশন থেকে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেন ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিনের বড় ভাই মনিরুজ্জামান (মনির)।এবিষয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন জানান,রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক কারণেই আমার বৈধ ভবনটি কোন নোটিশ এবং ম্যাজিষ্ট্রেট ছাড়াই ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে।  আমি রাজনৈতিক কর্মী ছাড়াও তো এ দেশের একজন নাগরিক।নাগরিক হিসেবে আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

 

 

আমি বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের অনুমতি নিয়েই ভবন নির্মাণ কাজ করেছি।তারপরও কোথাও সমস্যা হলে বিধানমত লিখিতভাবে আমাকে জানাতে পারতো। বিসিসি থেকে আমার ভবনের নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে বলার পরে আমি নির্মাণ কাজ বন্ধও রেখেছি।কিন্তু হঠাৎ করে একটি নোটিশ টাঙিয়ে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন আমার ভাবনটি ভেঙে দেয়। কি কারণে আমার ভবনটি ভাঙা হলো আমি নিজেও জানি না। কিন্তু তা না করে শুধু মাত্র রাজনীতিক প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ করা ও আমার ওপর প্রতিশোধ নিতে এই কাজ করা হয়েছে বলে আমি মনে করি।

 

 

 

তিনি আরও জানান, তিনিসহ অপর দুই ভাই মনির হোসেন ও অসিম হাওলাদারের নামে মহাসড়কের পাশে সাগরদী এলাকায় ক্রয়কৃত ৮ শতাংশ জমিতে ৭ তলা ভবন নির্মাণের জন্য ২০১৭ সালে সিটি করপোরেশন থেকে প্ল্যান অনুমোদন নেন। সড়ক থেকে ৬ ফুট ছেড়ে স্থাপনা নির্মাণের নিয়ম থাকলেও তারা ৮ ফুট ফাঁকা রেখে ২০১৯ সালে নির্মাণ কাজ শুরু করেন।পরবর্তীতে ২০১৯ সালের জুন মাসে ২০ তারিখ বিসিসি থেকে কাজ বন্ধ করতে বলে এবং সাত দিনের মধ্যে জবাব চেয়ে একটি নোটিশ প্রদান করে।পরবর্তীতে ২০১৯ সালের ২০জুন সকল কাগজসহ জবাব প্রদান করা হয়।

 

 

কিন্তু বেশ কয়েকদিন পার হলেও বিসিসি থেকে কোনো নির্দেশনা না পেলে আমরা পুনরায় ২০২০ সালের জুলাই মাসের ২তারিখ এবং ৮তারিখ কাজ শুরু করার প্রসঙ্গে অনুমোদন চেয়ে দরখাস্ত জমা দিলেও কোনো উত্তর দেয়নি বিসিসি। অতঃপর ২০২০ সালের আগস্টের ১৯ তারিখ বিসিসি থেকে একটি চিঠি প্রদান করে এবং সারভেয়ার ও বিসিসির উপরস্থ কর্মকর্তারা ভবন পরিদর্শন করে । তখন তারা ভবনের পিছনের দিক থেকে ৬ফুট যায়গা রাখার নির্দেশনা প্রদান করে।পরবর্তীতে ভবনের পেছনের ৬ফুট যায়গায় নির্মাণাধীন অংশ অপশরন করে তার ভিডিও ফুটেজসহ ২০২০ সালের জুলাই মাসের ২তারিখ বিসিসিতে জমা দেই।সকল কিছু সংশোধন করে বিসিসিতে জমা দেয়ার পরেও তারা কোনো নোটিশ না দিলে তারই পরিপ্রেক্ষিতে ২০২০সালের নভেম্বর মাসে ৯ তারিখে বিসিসি মেয়র বরাবর লিখিত দরখাস্তের মাধ্যমে তাকে সকল বিষয়ের উপর অবহিত করা হয়।

 

 

বিসিসি’র কোনও নির্দেশনা না পাওয়ায় ভবনের কাজ দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ রয়েছে তাহলে সিটি কর্পোরেশন কোথায় পেলো যে ভবনে কাজ চলছে। তিনি আরও বলেন-আমার অপরাধ আমি বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরণের রাজনীতি করেছি। বর্তমানে আমি পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীমের সাথে রাজনীতি করি। এসব কারণেই হয়তোবা রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক ভাবেই আমার ভবনটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে।সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সিটি করপোরেশনের কর্মীদের দেখিয়ে দেয়া সীমানার মধ্যেই তিনি বহুতল ভবনের একতলার ছাদ সম্পন্ন করেন।

 

 

সন্ধ্যায় কোনো নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ছাড়াই সিটি করপোরেশনের উচ্ছেদ শাখা বুলড্রোজার দিয়ে তাদের একতলা ভবন গুঁড়িয়ে দেয়। বিসিসি’র কর্মকর্তাদের ভাষ্যমতে, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ভবন মালিককে নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার জন্য একটি নোটিশ দিয়েছিলো। নোটিশের জবাব দেয়ার জন্যও বলা হয়েছিলো। ছাত্রলীগ সভাপতি নোটিশের জবাব দিলেও বিসিসির অনুমতি ছাড়াই পূণরায় তার ভবনের নির্মাণ কাজ চালিয়ে যায়।

 

 

 

যে কারণেই বরিশাল সিটি কর্পোরেশন উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে বিনা অনুমতিতে ভবনের নির্মিত অংশ ভেঙে দেন।বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন সাংবাদিকদের জানান, গত ৬ জানুয়ারি অনুমতি ছাড়া ভবনটির নির্মিত অবৈধ কাজ ২৪ ঘন্টার মধ্যে অপসারণ করে সিটি কর্পোশেন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে অবহিত করার জন্য নোটিশের মাধ্যমে অনুরোধ করা হয়েছিলো। নোটিশ পাওয়ার পরেও ভবন মালিক অবৈধ কাজ অপসারন না করায় বিসিসি’র উচ্ছেদ শাখা এবং বিসিসি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

 

 

 

এদিকে স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করে বলেন, ভবন ভাঙার জন্য ব্রুডুজার নিয়ে আসার পরে দুইজন ব্যাক্তি ভবনের সামনে টিনের বেড়ার সাথে একটা কাগজ লাগান।তারপরেই দেখলাম তারা ভবনটি ভাঙতে শুরু করে।তাদের লাগানো কাগজের আঠা এখনো শুকায়নি।এবিষয়ে বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বিএম কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদুল হক খান মামুন বলেন, কোন কর্মকর্তা ছাড়া ছাত্রলীগ সভাপতির ভবন ভাংচুরের চেষ্টা চালানোটা অবৈধ বলে মনে করি। এটি আরও স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় হওয়া উচিত।

 

 

এ বিষয়ে বাকসু ভিপি মঈন তুষার বলেন, কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়। কিন্তু আইন প্রয়োগ করাটা নিয়ম মাফিক হওয়া উচিত। নিয়ম মেনে নোটিশ দিয়ে ভবন ভাঙ্গার প্রক্রিয়ায় এগোলে দৃষ্টি কটু হতো না। কিন্তু নিয়ম না মেনে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতির ভবন ভাঙচুর করা অত্যন্ত গর্হিত কাজ। এদিকে মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতির নির্মাণাধীন ভবন ভেঙে ফেলার সরঞ্জামাদী মহাসড়কে রাখায় এবং উৎসুক জনতার ভিড়ের উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে সাগরদী এলাকা পুরোপুরি স্থবির হয়ে পড়ে। এতে বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কের সাগরদী এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অন্তত দেড় ঘণ্টা পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।

আমাদের ফেসবুক পাতা


© All rights reserved © 2018 DailykhoborBarisal24.com

Desing & Developed BY EngineerBD.Net

shares