মঙ্গলবার, ৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, দুপুর ১:০১

শিরোনাম :
ভোলা-লক্ষ্মীপুর নৌরুটে লঞ্চ-ফেরি চলাচল ব্যাহত বরিশাল কোতয়ালি মডেল থানায় ওসি আনোয়ার হোসেনের যোগদান ফেসবুক লাইভে এসে ৪ জনকে চাকরিচ্যুত করলেন মেয়র সাদিক প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষকদের ভূমিকা অপরিসীম : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বরিশালে যমুনা টিভির সাংবাদিকসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা শেবাচিমে চিকিৎসায় অবহেলায় মৃত্যুর অভিযোগে মেডিকেলে ভাঙচুর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ভিড়ে ওবায়দুল কাদেরসহ ভেঙে পড়ল মঞ্চ আবুধাবিতে লটারিতে ৯৮ কোটি টাকা জিতলেন প্রবাসী বাংলাদেশি বর্ণাঢ্য আয়োজনে বরিশালে ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন টিসিবির বাড়তি দামে পণ্য কিনতে এসে ভোগান্তি
মনপুরায় একটি ব্রিজের অভাবে দুর্ভোগে হাজারো পরিবার

মনপুরায় একটি ব্রিজের অভাবে দুর্ভোগে হাজারো পরিবার

dynamic-sidebar

মনপুরা (ভোলা) প্রতিনিধিঃ ভোলার মনপুরায় একটি পাকা বিজ্রের অভাবে দুর্ভোগ পৌহাচ্ছেন হাজিরহাট ইউনিয়নের দাসেরহাট গ্রামের হাজারো পরিবার। খালের ওপর ব্রিজ না থাকায় নিজেরাই তৈরী করেছেন গাছের সাঁকো।

ওই সাঁকোতে ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত খাল পার হচ্ছেন শতশত গ্রামের বাসিন্দাদের পাশাপাশি কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। এতে গাছের সাঁকো থেকে পড়ে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। দ্রুত খালের ওপর পাকা ব্রিজ নির্মানের দাবী স্থানীয়দের।

 

সাঁকো সংলগ্ন দাসেরহাট গ্রামের বাসিন্দা কামাল জানান, সাঁকো পার হয়ে স্কুলে যাওয়ার সময় বইসহ খালে পড়ে যায় শিশু শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও বয়স্করা বিশাল সাঁকো পার হয়ে যেতে পারেনা। সাঁকো পার হতে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। এই খালের ওপর পাকা ব্রিজ নির্মান হলে দুর্ভোগ থেকে রেহাই পাবেন তারা। ষাটোর্ধ্ব বয়স্ক রহিমা খাতুন জানান, বাবারে হাক্কা (সাঁকো) পার হইতে খুব কষ্ট।

 

গেলো মাসে ডাক্তার দেখাইতে গিয়া হাক্কা (সাঁকো) পার হইবার সময় খালে পইরা (পড়ে) যাই। হেই সময় মাজায় প্রচন্ড ব্যাথা পাই। হেই ব্যাথা এহনো সারে নাই। আমাগো খালের ওপর একটা ব্রিজ নির্মান হইলে আমরা কষ্ট থেকে রেহাই পাইতাম। একইভাবে বলেন গ্রামের অন্যান্য বাসিন্দা আমেনা বেগম, সুফিয়া খাতুন, জামাল, রহিমসহ অনেকে। তারা ওই খালের ওপর দ্রুত ব্রিজ নির্মানের দাবী জানান।

 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার সদর হাজিরহাট ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড দাসের হাট গ্রামের রাস্তার মাথায় খালের ওপর গাছের সাঁকো তৈরী করে যাতায়াত করছে বাসিন্দারা। ওই সাঁকো পার হয়ে গ্রামের বাসিন্দারা হাট- বাজারে আসতে হয়।

 

এছাড়াও গ্রামের শিক্ষার্থীদের স্কুলে আসতে ওই সাঁকো পার হতে হয়। এতে অনেক সময় সাঁকো থেকে পড়ে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। তবে বৃদ্ধদের জন্য সাঁকো পার হতে সময়সাপেক্ষ ও কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। এছাড়াও সাঁকো পার হয়ে যানবাহন যেতে না পারায় চিকিৎসা নিতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যেতে কষ্ট হচ্ছে বাসিন্দাদের। পাশাপাশি যানবাহন গ্রামে যেতে না পারায় মালামাল নিয়ে প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারন মানুষ।

এই ব্যাপারে হাজিরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নিজামউদ্দিন হাওলাদার জানান, দাসেরহাট গ্রামের মাথায় খালের ওপর সাঁকো দিয়ে যাতায়াত করতে ওই গ্রামের বাসিন্দাদের কষ্ট হচ্ছে। অনেক সময় সাঁকো পার হওয়ার সময় পড়ে গিয়ে দুঘর্টনা ঘটে। ওই খালে ওপর ব্রিজ নির্মানের চেষ্ঠা অব্যাহত আছে।

এই ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মোঃ ইলিয়াছ মিয়া জানান, খালের উপর ব্রিজ নির্মানের জন্য দুর্যোগ ও ত্রান মন্ত্রণালয়ে একটি প্রস্তাব প্রেরন করা হয়েছে। আশা করছি প্রস্তবটি অনুমোদন হলেই তা দ্রুত বাস্তবায়ন করা হবে।

এই ব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান শেলিনা আকতার চৌধুরী জানান, দ্রুত ওই খালের ওপর ব্রিজ নির্মানের জন্য যথাযত কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। আশা করছি দ্রুত সময়ে ত্রান মন্ত্রানালয় অথবা এলজিইডি ওই খালের ওপর ব্রিজ নির্মানে সকল পদক্ষেপ গ্রহন করবে।

আমাদের ফেসবুক পাতা


© All rights reserved © 2018 DailykhoborBarisal24.com

Desing & Developed BY EngineerBD.Net

shares