শনিবার, ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, দুপুর ২:২৭

দক্ষিনাঞ্চলের তিন পৌরসভায় আ’লীগের নিরঙ্কুশ জয়

dynamic-sidebar

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়া এবং বিএনপি স্বতন্ত্র প্রার্থীদের ভোট বর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে দক্ষিণাঞ্চলের তিন পৌরসভা নির্বাচন।বরিশালের বানারীপাড়া,মুলাদী ও কলাপাড়া পৌরসভায় ১৪ই ফেব্রুয়ারী রবিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয় এবং শেষ হয় বিকেল ৪টায়। তিন পৌরসভা নির্বাচনে সবগুলোতেই বিপুল ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন।

 

ভোটগ্রহণ শুরুর প্রথম দিকে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে ভোটার। সারাদিন উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটাধিকার প্রদান করেন ভোটাররা।এবারই প্রথমবারের মতো মুলাদী পৌরসভা নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ভোটাররা যেমন নতুন উদ্দীপনায় ভোট দিয়েছেন তেমনি অনেক স্থানে এই মেশিনে ভোট দিতে গিয়ে বিপাকে পড়েন ভোটাররা।পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকায় বিষয়টি বুঝে উঠতে না পেরে অনেকেই ভোট দিতে অধিক সময় নিয়েছেন।

 

এতে বাইরে লাইনে অপক্ষো করে ভোগান্তি পোহাতে হেেয়ছ বাকি ভোটারদরে। আবার অনকে কন্দে্রে আঙুলরে ছাপ না মলোতওে বপিাকে পড়নে ভোটাররা।অপরদিকে বানারীপাড়া এবং কলাপাড়ায় ব্যালটের মাধ্যমে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে।বরিশালের তিন পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ীদের মধ্যে বরিশালের বানারীপাড়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সুভাষ চন্দ্র শীল পেয়েছেন পাঁচ হাজার ৪২৭ ভোট। আর আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র নারিকেল প্রতীকের প্রার্থী জিয়াউল হক মিন্টু পেয়েছেন ৬৯৮ ভোট এবং বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী রিয়াজ আহমেদ মৃধা পেয়েছেন ২৬৯ ভোট।

 

বানারীপাড়া পৌরসভা নির্বাচনে ব্যালটের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান।কলাপাড়া পৌরসভায় আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী বিপুল চন্দ্র হাওলাদার পেয়েছেন ৩ হাজার ৬৫৯ ভোট । তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থীদিদার উদ্দিন আহমেদ মাসুম ব্যাপারী জগ প্রতীকে পেয়ছেন ৩ হাজার ২০৫ ভোট। বিএনপি মনোনীতধানের শীষ প্রতীকে হাজী হুমায়ূন সিকদার পেয়েছেন ১৬০১।

 

 

এছাড়া ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত পাখা প্রতীকে মো: সেলিম মিয়া পেয়েছেন ৬৬৯ ভোট।অপরদিকে মুলাদী পৌরসভায় আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শফিকুজ্জামান রুবেল পেয়েছেন সাত হাজার ৫৪৮ ভোট, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী দিদারুল আহসান খান মোবাইল ফোন প্রতীকে পেয়েছেন দুই হাজার ৬৫ ভোট। বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আল-মামুন ৪৯২ ভোট এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম পেয়েছেন ৯৪৯ ভোট।জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নুরুল আলম জানান, বানারীপাড়া ও মুলাদী পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দর করতে যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে আগে থেকেই।

 

 

মুলাদীতে ইভিএম পদ্ধতিতে এবং বানারীপাড়ায় ব্যালটে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। দুই পৌরসভার প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও একজন করে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন। প্রতিটি কেন্দ্রে পুলিশ ও আনসার এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছে।

আমাদের ফেসবুক পাতা


© All rights reserved © 2018 DailykhoborBarisal24.com

Desing & Developed BY EngineerBD.Net

shares