শনিবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ভোর ৫:১৭

আজ থেকে শুরু হচ্ছে ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন : ত্রিশটি ওয়ার্ডেই নতুন কমিটির গুঞ্জন।

dynamic-sidebar

বিশেষ প্রতিবেদক, শফিক মুন্সি ::

আজ রবিবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে মহানগর আ.লীগের ওয়ার্ড পর্যায়ের সম্মেলন।প্রথমদিন হবে ১ ও ২৯ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন।পর্যায়ক্রমে প্রতিটা ওয়ার্ডেই সম্মেলন আয়োজন করা হবে, গঠন করা হবে নতুন কমিটি। সম্মেলন গুলো সঠিকভাবে পরিচালনা করার জন্য মহানগর আওয়ামীলীগের সাত নেতাকে নিয়ে গঠিত হয়েছে বিশেষ মনিটরিং টিম। ২০ অক্টোবর শুরু হওয়া ধারাবাহিক এ সম্মেলন একদিন পর একদিন করে চলবে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত।প্রতিটি সম্মেলনের ভেনু আলাদা আলাদা হলেও সময় নির্দিষ্ট করা হয়েছে দুপুর তিনটায়।

আজকের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে শিক্ষাবোর্ডের সম্মুখে। এরপর আগামী ২২ অক্টোবর ২৮ ও ৩০ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন হবে কাশীপুর চৌরাস্তা। ২৪ অক্টোবর ২২ ও ২৭ নং ওয়ার্ড সিএন্ডবি রোড, চৌমাথায়। ২৬ অক্টোবর ২৪,২৫,২৬ নং ওয়ার্ডের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে রূপাতলী বাসস্ট্যান্ডের পাশে। ২৮ অক্টোবর ১৩ ও ২৩ নং ওয়ার্ডের সম্মেলনের স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে সিএন্ডবি রোড। ৩০ অক্টোবর ১১ ও ১২ নং ওয়ার্ড নগরীর আমতলা মোড়স্থ বিজয় বিহঙ্গে। অক্টোবর মাসে মহানগরীর মোট ১৩ টি ওয়ার্ডে সম্মেলন শেষে পহেলা নভেম্বর থেকে শুরু হবে বাকিগুলোর।

বান্দরোডস্থ ঈদগাহর সম্মুখে পহেলা নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ৯ ও ১০ নং ওয়ার্ড আ. লীগের সম্মেলন। ৫, ৬ ও ৮ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন ০৩ নভেম্বর সোনালী আইসক্রিম মোড়ে। ০৫ নভেম্বর ভাটিখানা বাজারে অনুষ্ঠিত হবে ৪ ও ৭ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন। বাংলাদেশ ব্যাংক মোড়ে ০৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ১৬ ও ১৭ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন। ০৯ নভেম্বর ঠিক করা হয়েছে ১৪ ও ১৫ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন, স্থান আলমগীর ছাত্রাবাস বটতলা। ২০ ও ২১ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন কলেজ এভিনিউ তেমাথায় ১১ অক্টোবর। টেক্সটাইল বটতলা মোড়ে প্রথমে ৩ নং পরে ২ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলন হবে ১৩ ই অক্টোবর। ১৫ অক্টোবর ১৮ ও ১৯ নং ওয়ার্ড আ.লীগের সম্মেলনের মাধ্যমে শেষ হবে এ যাত্রা। স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে শীতলাখোলার মোড়, কালীবাড়ি রোড।

ওয়ার্ড পর্যায়ের সম্মেলনগুলো যেন ঠিকঠাক ভাবে সম্পন্ন হয় এজন্য গঠন করা হয়েছে বিশেষ টিম। মহানগর আওয়ামীলীগের সাত (০৭) সদস্যের এই টিমে আছেন দপ্তর সম্পাদক হুমায়ুন কবির, সদস্য রফিকুল ইসলাম খোকন, শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক নিরব হোসেন টুটুল, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক হাসান মাহমুদ বাবু, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ নূর উদ্দিন শাহীন, সহ-দপ্তর সম্পাদক কাজী মুনির উদ্দিন তারিক, প্রচার সম্পাদক এড.গোলাম সরোয়ার রাজিব।

সম্মেলনের খুঁটিনাটি নিয়ে কথা হলো মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এড.এ কে এম জাহাঙ্গীর এর সঙ্গে। নতুন – পুরাতন নেতৃবৃন্দর সমন্বয়েই কমিটি করার কথা জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, পরিস্থিতি বুঝে সিলেকশন বা ভোটাভুটিতে নির্বাচিত করা হবে ওয়ার্ড কমিটির শীর্ষপদ।

নতুন কমিটিতে কাদের গুরুত্ব দেওয়া হবে এমন প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল। তিনি বলেন, সৎ, ত্যাগী এবং মৌলবাদী সংস্পর্শ মুক্ত প্রার্থীদের হাতেই তুলে দেওয়া হবে তৃণমূল আওয়ামীলীগের ভার৷

দীর্ঘ সাত বছর পর নতুন কমিটি গঠনের খবরে প্রাণচাঞ্চল্যতা এসেছে নবীন – প্রবীণ সকল নেতাকর্মীদের মাঝে। সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত অবধি নগরীর সোহেল চত্ত্বরস্থ জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের অফিসে বাড়ছে কর্মীদের আনাগোনা। তবে অদৃশ্য কারণে গণমাধ্যম এড়িয়ে চলছেন পদ প্রত্যাশী বেশিরভাগ নেতাকর্মীই। নাম প্রকাশ না করার শর্তে নতুন কমিটিতে পদপ্রার্থী সাবেক এক ছাত্রলীগ নেতা বলেন, সম্মেলন বা কমিটি নিয়ে পত্রিকায় কোনো বক্তব্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞা আছে। আমাদের একজন মুখপাত্র আছেন, শৃঙ্খলা রক্ষার্থে তিনিই সব বলবেন।

২৫ নং ওয়ার্ড আ.লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সোহেল মোল্লার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি ধন্যবাদ জানিয়ে কিছু বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তিনি আরো বলেন, দলীয় হাইকমান্ডের সিদ্ধান্তের প্রতি আমি সবসময়ই শ্রদ্ধাশীল। নতুন সম্মেলন এবং কমিটির খবরে সবার মতো আমিও উচ্ছ্বসিত। কিন্তু কোন বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি নই।

আমাদের ফেসবুক পাতা

© All rights reserved © 2018 DailykhoborBarisal24.com

Desing & Developed BY EngineerBD.Net

%d bloggers like this: